Home / ফেসবুক / তথ্যপ্রযুক্তির যুগে যোগাযোগের কিছু জনপ্রিয় মাধ্যম।

তথ্যপ্রযুক্তির যুগে যোগাযোগের কিছু জনপ্রিয় মাধ্যম।

ব্লগ ৭১ এর প্রিয় টিউনার এবং ভিজিটরগণ কেমন আছেন সবাই? যোগাযোগ বলতে এক জনের সাথে অন্যজনের মনেরভাব আদানপ্রদান করাকে বোঝায়। এইতো কয়েক বছর আগেও যোগাযোগের বড় মাধ্যম ছিল চিঠি। এখন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির যুগ। তথ্য প্রযুক্তির উন্নতির সাথে সাথে যোগাযোগের ক্ষেত্রেও অনেক বেশি সাফল্য অর্জন হয়েছে।

তথ্যপ্রযুক্তির এই যুগে ইন্টারনেটের মাধ্যমে যোগাযোগকে করেছে খুব সহজ। মাত্র কয়েক সেকেন্ডেই পৃথিবীর একপ্রান্ত থেকে অন্যপ্রান্তে যোগাযোগ হয়েছে খুব সহজ। যোগাযোগের এমন সহজ মাধ্যমের ফলে পুরো পৃথিবীটা যেন একটি গ্রামে পরিণত হয়েছে।

বর্তমানে যোগাযোগের বড় মাধ্যমগুলো হচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ। সামাজিক যোগাযোগের পরিধি এখন সমাজ এবং রাষ্ট্রকে ছাড়িয়ে সারা বিশ্ব ব্যাপী ছড়িয়ে পড়েছে।পৃথিবীর সব থেকে জনপ্রিয় কয়েকটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম তুলে ধরলাম।

facebook newsfeed

ফেসবুক :- এক নম্বরে রয়েছে ফেসবুক। ফেসবুক হচ্ছে পৃথিবীর বড় ধরনের সামাজিক যোগাযোগ। ফেসবুক ব্যবহার করেন না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া খুব মুশকিল। ফেসবুক সারা পৃথিবীর মানুষদের একটি গ্রামে পরিনিত করেছেন। হারিয়ে যাওয়া বন্ধু, দূরে চলে যাওয়া বন্ধু, পূরানো বন্ধুদের সাথে নতুন করে যোগাযোগের বড় মাধ্যম হয়ে দাড়িয়েছে।ফেসবুক মানুষকে এমন একটি প্লাটফর্মে নিয়ে এসেছে যা সামাজিক যোগাযোগকে সহজ থেকে অতি সহজ করে দিয়েছে।

টুইটার :- টুইটার পৃথিবীর দ্বিতীয় সামাজিক যোগাযোগ। তবে বাংলাদেশে তেমন জনপ্রিয় হয়ে উঠতে পারেনাই। টুইটার ব্যবহারকরীরা বেশির ভাগই বড় ধরনের তারকারা। বড় রাজনৈতিক এবং খেলোয়াররা টুইটার ব্যবহার করেন। সামাজিক যোগাযোগের বড় একটি মাধ্যম হচ্ছে টুইটার।

গুগল প্লাস:- পৃথিবীর বড় ইন্টারনেট কম্পানী হচ্ছে গুগল। আর গুগলের সামাজিক কম্পানীর নাম হচ্ছে গুগল প্লাস। গুগল প্লাস তেমন জনপ্রিয় হতে না পারলেও এর রয়েছে অনেক ব্যবহারকারী। গুগল প্লাস অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগ থেকেও ব্যবহার করা খুব সহজ।

ইমেইল- তথ্য আদান প্রদানের বড় মাধ্যম হচ্ছে ইমেইল। আগের দিনে চিঠির উন্নত ভার্ষন হচ্ছে ইমেইল। ইমেইল এর মাধ্যমে বড় ধরনের পরিবর্তন এসেছে যোগাযোগের মাধ্যমে। ইমেইল আবিষ্কারের পর থেকে যোগাযোগের মাধ্যম বৈপ্লবিক হারে পরিবর্তন সাধিত হয়েছে।

জিমেইল:- জিমেইল হচ্ছে জনপ্রিয় বিনামূল্যের একটি সেবা। নিরাপত্তার দিকে জিমেইল অনেক ভালে। জিমেইল এর মাধ্যমে পিকচার থেকে শুরু করে যেকোন লেখে খুব সহজেই এবং দ্রুততার আদান প্রদান করা যায়। পৃথিবীতে সব থেকে বেশি ব্যাহৃত হয়ে থাকে জিমেইল। এটি গুগলের একটি সেবা।

ইয়াহু:- জিমেইল এর পরের অবস্থান হচ্ছে ইয়াহু। তবে তথ্য ফাঁস হওয়ার জন্য এদের বিরুদ্ধে সিকুরিটি ত্রুটি আছে বলে জানিয়ে গবেষকরা। ইয়হুর মাধ্যমেও বড় ধরনের তথ্য বা ডেটা আদান-প্রদান হয়ে থাকে।

হটমেইল:- হটমেইল হচ্ছে মাইক্রোসফট কর্পোরেশন কম্পানী। এটির মাধ্যমেও তথ্য বা ডেটা আদান প্রদান হয়ে থাকে।

Blogging.- ব্লগিং :- যোগাযোগের একটি বড় মাধ্যম হচ্ছে ব্লগিং। বর্তমানে ব্লগিং খুব জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। মনের ভাব প্রকাশের জন্য বিনামূল্যে ব্লগিং করা একটি সামাজিক যোগাযোগের বড় মাধ্যম হয়ে দাড়িয়েছে।বিশ্বের বিখ্যাত ব্লগিং সাইট হচ্ছে গুগলের ব্লগস্পট ডট কম ও ওয়ার্ডপ্রেস ডট কম। কমেন্ট এর মাধ্যমেও মতামত জানাযায়।

ভিডিও কলিং:- বর্তমানে এখন ভিডিও কলিং খুব জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। বিশেষ করে এন্ড্রয়েড ফোন ভিডিও কলিং বেশি ব্যবহৃত হয়ে উঠেছে। ভিডিও কলিং এর কয়েকটি নাম দেয়া হলো- ভয়েস এবং ভিডিও চ্যাটের জন্য সবচেয়ে জনপ্রিয় মাধ্যম হল হোয়াটস অ্যাপ, ভাইভার ও ইমু এবং ফেসবুক ম্যাসেঞ্জার।

প্রিয় বন্ধুগণ পোষ্টটি কেমন লাগল জানাবেন।

সবাই ভালো থাকুন। আবারও নতুন কিছু নিয়ে হাজির হবো।

About Rony

mm
যা জানি তা জানাতে চাই ☺

Check Also

আপনার ফেসবুক একাউন্ট অন্যকেউ কোন ডিভাইস থেকে চালাচ্ছে দেখেনিন

প্রিয় ব্লগ৭১ এর টিউনার কেমন আছেন সবাই? ফেসবুক হচ্ছে সামাজিক যোগাযোগের একটি বড় মাধ্যম। একটু …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *