ব্লগ একাত্তর-

তীব্র শৈত্যপ্রবাহ ধেয়ে আসছে সারা দেশে

এই মওসুমের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা বিরাজ করছে রাজশাহীতে। এ মাসেই রাজশাহীর উপর দিয়ে দুটি শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাবে। এরমধ্যে ডিসেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহে মাঝারী ও শেষ সপ্তাহে তীব্র শৈত্যপ্রবাহ বিরাজ করতে পারে। তবে জানুয়ারীর প্রথম থেকে শুরু করে প্রথমার্ধ পর্যন্ত তীব্র শৈত্য প্রবাহ বিরাজ করার সম্ভাবনা রয়েছে। বুধবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত বেশিরভাগ সময়ই রাজশাহী অঞ্চলে সুর্যের মুখ দেখা যায়নি বললেই চলে। যেটুকু সময় সূর্য ছিলো, সেসময়ও ছিলোনা প্রখরতা। এই মৌসুমে এমন আবহাওয়া ছিলো এটিই প্রথম। এতে দিনভর শীত অনুভুত হয়েছে। সন্ধ্যার পর থেকে শীতের তীব্রতা বাড়তে থাকে। রাত ১০টার পর থেকে শীতের তীব্রতা বাড়িয়ে দিচ্ছে কুয়াশা,থাকছে সকাল পর্যন্ত।

এদিকে, শীত বাড়ায় ভোগান্তি বাড়ছে ছিন্নমুল ও সাধারণ মানুষের। খেটে খাওয়া সাধারণ মানুষের ভোগান্তি বেশি পোহাতে হচ্ছে। কারণ প্রতিবছর ডিসেম্বর মাস থেকে বিভিন্ন সংগঠন থেকে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হলেও এবার এখনো শুরু হয়নি শীত বস্ত্র বিতরণ। সাধারণ মানুষ শীত নিবারণের জন্য চেয়ে থাকে বিভিন্ন সংগঠনের দিকে।

অপর দিকে শীত বাড়ায় বাড়ছে রোগ বালাই। বিশেষ করে শিশু ও বৃদ্ধরা শীত জনিত রোগে আক্রান্ত হচ্ছে বেশি। শিশু ও বৃদ্ধদের মধ্যে নিউমোনিয়া, ডায়রিয়া রোগ দেখা দিয়েছে। বুধবার সকাল থেকে শীতজনিত রোগে আক্রান্ত রোগিদের হাসপাতালে ভর্তি হতে দেখা গেছে। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগে শীতজনিত রোগে আক্রান্ত রোগিদের ভর্তি করা হচ্ছে। এতে মেডিসিন বিভাগে বেড়েছে রোগির চাপ।
সূত্র: ইন্টারনেট

Advertisements
mm

Rony

যা জানি তা জানাতে চাই ☺

Add comment

Your Header Sidebar area is currently empty. Hurry up and add some widgets.