Blog71

প্রথম বাংলা চলচিত্র মুখ ও মুখোশ সম্পর্কে কি জানেন? না জানলে জানুন।

১৯৫৪ সালের ৬ আগস্ট হোটেল শাহবাগে ‘মুখ ও মুখোশ’ সিনেমার মহরত অনুষ্ঠিত হয়। মহরতে উদ্বোধক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের গভর্নর ইস্কান্দার মির্জা। এ সিনেমার স্থানীয় অভিনেতারা পূর্ব অভিজ্ঞতা ছাড়াই অভিনয় করেন। শুধু তাই নয়, তারা এতে অভিনয় করে কোনো পারিশ্রমিকও নেননি।

১৯৫৩ সালে এই চলচ্চিত্র নির্মাণের কাজ শুরু হয়। তখন পূর্ব পাকিস্তানে নিজস্ব কোন চলচ্চিত্র শিল্প গড়ে ওঠেনি। স্থানীয় সিনেমা হলগুলোতে কলকাতা অথবা লাহোরের চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হতো। পশ্চিম পাকিস্তানের চলচ্চিত্র প্রযোজক এফ. দোসানির পূর্ব পাকিস্তানে চলচ্চিত্র প্রযোজনার ব্যাপারে নেতিবাচক মন্তব্যে ক্ষুদ্ধ হয়ে জব্বার খান চলচ্চিত্র নির্মাণে উদ্যোগী হন। তারপর জব্বার খান দুই বছরে এই সিনেমা নির্মাণের কাজ শেষ করেন।

পূর্ব পাকিস্তানে তখন প্রোডাকশন স্টুডিও না থাকায়, সিনেমার নেগেটিভ ডেভেলপের জন্য লাহোরে পাঠানো হয়। সব মিলিয়ে ১৯৫৬ সালে সিনেমার কাজ সম্পন্ন হয়। কিন্তু ঢাকায় প্রদর্শনের অনুমতি পায়নি। এত জল্পনা কল্পনা করে যে সিনেমা নির্মাণ করা হলো অথচ ঢাকায় আসার পর সিনেমা প্রদর্শনীর বিষয়ে প্রেক্ষাগৃহের মালিকদের কাছ থেকে আশানুরূপ সাড়া পাননি নির্মাতা। তবে এমন প্রতিবন্ধকতা বেশি দিন ছিল না। অল্প সময়ের মধ্যে ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ, চট্টগ্রাম এবং খুলনায় একযোগে প্রদর্শিত হয়। সিনেমার প্রিমিয়ার শো অনুষ্ঠিত হয় পুরান ঢাকার রূপমহল প্রেক্ষাগৃহে।

পরিচালকঃ আব্দুল জব্বার খান
প্রযোজকঃ আব্দুল জব্বার খান
রচয়িতাঃ আব্দুল জব্বার খান (“ডাকাত” নামের নাটক হতে)
অভিনয়শিল্পীঃ পূর্ণিমা সেন, সাইফুদ্দিন,বিনয় বিশ্বাস, জব্বার, ইনাম আহমেদ, জহরত আজরা
সুরকারঃ সমর দাস
চিত্রগ্রাহকঃ মুরারী মোহন জামান
সম্পাদকঃ আব্দুল লতিফ
পরিবেশকঃ ইকবাল
ফিল্মস্‌ঃ মুক্তি১৯৫৬দৈর্ঘ্য ৯৯ মিনিট
দেশঃ বাংলাদেশ পাকিস্তান
ভাষাঃ বাংলা
নির্মাণব্যয়ঃ ৬৪,০০০ রূপি

ছবিটির প্রথম প্রদর্শনী হয় মুকুল প্রেক্ষাগৃহে (বর্তমান আজাদ প্রেক্ষাগৃহ)। এটি ঢাকা, চট্টগ্রাম, নারায়ণগঞ্জ এবং খুলনায় একযোগে মুক্তি পায়। সেই অঞ্চলের প্রথম চলচ্চিত্র হিসাবে দর্শকমহলে এটি নিয়ে আগ্রহের সৃষ্টি হয়।

সবাই ভালো থাকুন।

Advertisements

Add comment

Your Header Sidebar area is currently empty. Hurry up and add some widgets.