Blog71

জ্ঞানী হতে হলে—

বাইবেলের হিতোপদেশ পুস্তকটি আমার কাছে চমৎকার লাগে। কারণ, এর মধ্যে আমি আমার জীবনের জন্য অনেক উপদেশ খুঁজে পাই। অনেক পরামর্শ এর মধ্যে রয়েছে। জীবনের সবকিছুই এর মধ্যে। আমি কিভাবে চলবো, বা আমার কিভাবে চলা উচিত সে সব পরামর্শ এর মধ্যে আমি খুঁজে পাই। আমি মাঝে মাঝে পড়ি এবং অধ্যয়ন করি। অতি চমৎকার লাগে যখন ভাবি আমার জীবনের আলো এই হিতোপদেশে পাচ্ছি ভেবে। আমি মনে করি, এই বাইবেলের হিতোপদেশ পুস্তকটি পড়লে অনেক উপদেশ ও নীতিশিক্ষা সবাই পেতে পারে। আমি আমার ব্যাক্তি জীবনে কিভাবে চলবে আমার কোনো বিপদ হবে না সেই রকম দৈনন্দিন জীবনের বাস্তবতা সবই আমি পেতে পারি। ‘সদাপভুর ভয় জ্ঞানের আরম্ভ’-এই কথাটি আমার কাছে দারুণ লাগে। কারণ, আমরা যদি সদাপ্রভুকে ভয় করি, তাহলে সমস্ত জ্ঞানে আমরা পূর্ণ হতে পারবো। আমাদের জীবনে আমরা পাপ কাজ চলে এলে আমরা বাধা পাবো। পাপ কাজকে আমরা এড়িয়ে চলতে পারবো।
হিতোপদেশ পুস্তকটি নীতি কথার ভাণ্ডার। বাস্তব জীবনের সাধারণ বুদ্ধি ও সৌজন্যবোধের অনেক বিষয় এর মধ্যে পেতে পারি। আবার জ্ঞানীদের কথাও এর মধ্যে রয়েছে। প্রকৃতপক্ষে জ্ঞানীরা তাদের অর্জিত জ্ঞান কতটা যথাযথভাবে ব্যবহার করে, সে বিষয়েও বলা হয়েছে। পারিবারিক,ব্যবসা সংক্রান্ত, সামাজিক সৌজন্যতা, আত্মসংযম, নম্রতা, সহিষ্ণুতা, দরিদ্রদের প্রতি সম্মানবোধ, বন্ধুদের প্রতি ভালোবাসা এসব বিষয়েও আকর্ষণীয় বিষয় রয়েছে। সুতরাং আমি বলতে পারি, কেউ যদি হিতোপদেশ পুস্তকটি পাঠ করে ও অধ্যয়ন করে, তাহলে অবশ্যই জ্ঞানী হবে। তাতে কোনো সন্দেহ নেই।
————-ক্ষুদীরাম দাস,

Advertisements

khudiram das

Add comment

Your Header Sidebar area is currently empty. Hurry up and add some widgets.