ব্লগ একাত্তর-

আমি পেয়েছি বসন্ত – গোলাম রাববী (রাকি)

আমি দেখেছি আমের মুকুল, পেয়েছি নিঃশ্বার্থ ঘ্রাণ।
ডেকেছে দোয়েল,কোয়েল,শ্যামা, কোকিল সু-মধুর কন্ঠে,
করেছে কিচিঁর-মিচিঁর শালিক,পেঁচা গাছের ডালে,
ফুটেছে শিমুল ফুল লাল রং হয়ে বসন্ত রাঙিয়ে।
আমি বিভোর এ রঙে, আমি মুগ্ধ এ প্রকৃতি দেখে।
কোথায়ও কৃষ্ণচূড়ার লাল রং,কোথায়ও সজিনার সাদা ফুল।
আবার কখনও শুনেছি করইগাছের শুক্ন ফলের ঝন ঝন শব্দ।
ঝিঁ ঝিঁ পোকা করেছে ঝাঁ ঝাঁলো শব্দ নতুন পাতার মাঝে।
কখনও ঝরে পড়ে গাছের পাতা দক্ষিণা বায়ুর স্রোতে।
সোনালি সূর্য মুচকি মুচকি নতুন গজানো পাতার মাঝে হাঁসে।

আমি দেখেছি মটরশুটির ক্ষেত, তুলেছি মুঠি মুঠি।
আমি বসেছি সবুজ ঘাসে, অনুভবে নরম বিছানা।
ধনিয়া ফুলের মুহ মুহ ঘ্রাণ, বায়ুতে দোলায়ে মাথা। সরিষা ফুলের ঝাঁ ঝাঁ ঘ্রাণে, দেখি হলদে পরীর মেলা। রাখাল ভাই তুলছে যেন, তার ই মাঝে শিয়ালমুথা।
আমি মুগ্ধ, আমি শান্ত নিঃশ্পাপ প্রকৃতি দেখে দৃষ্টি যেন অপলক!

আবার হেটেছি নদীর ধারে, দেখেছি শঙচিল আকাশে উড়ে।
জেলে ভাই ধরে মাছ জাল নিঙরিয়ে, আবার কেউ তরী বেয়ে।
বুরো ধানে ছেয়ে গেছে নদীর দুই পাজঁর, সবুজের দোলানীতে।
তারই মাঝে এক পায়ে দাঁড়িয়ে বগি মাছের সন্ধানে।

আমি পেয়েছি বসন্ত, পেয়েছি এ ধরা, পেয়েছি প্রকৃতির রুপ।
আমি পেয়েছি যেন এ ঋতুর মাঝে স্বর্গের ছোঁয়া ।

১৯ ফাল্গুন ২০২৫ বঙ্গাব্দ।
৩ মার্চ ২০১৯ ইংরেজি।

Advertisements

Add comment

Your Header Sidebar area is currently empty. Hurry up and add some widgets.