ব্লগ একাত্তর-

কম্পিউটারকে ফাষ্ট করুন রকেটের গতির মত

আপনার কম্পিউটার কি স্লো কাজ করে? চালু হতেও অনেক সময় নেয় তাহলে আমার এই পোষ্টটি আপনার জন্য। কম্পিউটার স্লো কাজ করলে আমরা হুটহাট উইন্ডোজ সেটাপ করে ফেলি আসলে এটা কিন্তু মোটেও ঠিক না। কিছু কিছু বিষয় একটু খেয়াল করলে আপনার কম্পিউটার স্লো কাজ করবে না। তাহলে চলুন শুরু করা যাক। আমার আজকের টিপস কম্পিউটারকে ফাষ্ট করুন রকেটের গতিতে

১। কম্পিউটারে পাওয়ার সাপ্লাই ব্যবহার করুন। হঠাৎ বিদ্যুৎ চলে গেলে কম্পিউটার প্রপারলি শার্টডাউন হয় না এত করে কিন্তু কম্পিউটারে মারাত্বক ক্ষতি হয়। আপনি যখন একটি প্রোগ্রাম ওপেন করবেন তখন থেকেই কম্পিউটারের মাইক্রোপ্রসেসর থেকে শুরু করে সকল ডিভাইস কাজ করে এবং অপারেটিং সিষ্টেমও কাজ করে। সেই মূহর্তে যদি বিদ্যুতের কারণে হঠাৎ কম্পিউটার বন্ধ হয়ে যায় তাহলে তো ক্ষতি হবেই। তাই কম্পিউটার এর জন্য পাওয়ার সাপ্লাই ব্যবহার করুন।

২। এন্টিভাইরাই ব্যবহার করুন আপনার কম্পিউটারে। কম্পিউটারে অনেক ধরনের ভাইরাস আক্রান্ত হতে পারে। ফলে কম্পিউটার স্লো হয়ে যায়। তাই কম্পিউটারে এন্টিভাইরাস ব্যবহার করাটা খুব জরুরী। বাজারে অনেক ধরনের এন্টিভাইরাস পাওয়া যায় সেখান থেকে ভালো মানের এন্টিভাইরাস কিনে নিয়ে ব্যবহার করুন। ফ্রি জিনিস ব্যবহার করবেন না। কারণ ফ্রি এন্টিভাইরাস কম্পিউটারকে স্লো করে দেয়।

৩। কম্পিউটারে কাজ করার শেষে টেমফাইল ডিলেট করে দিন। টেমফাইল কম্পিউটারকে স্লো করে দেয়। টেমফাইল ডিলেট করার জন্য প্রথমে আপনাকে ষ্টার্ট থেকে রানে গিয়ে %temp# লিখে এন্টার চাপুন। দেখবেন অনেক অব্যবহৃত ফাইল জমে আছে সেগুলো ডিলেট করে দিন। আসা করি কম্পিউটার ফাষ্ট হয়ে যাবে। তবে মনে রাখতে হবে এই কাজগুলো প্রতিনিয়োত করতে হবে।

৪। ডিক্সডিগফাগমেন্ট করুন কম্পিউটারে। এটি যদি প্রতিনিয়োত একবার করে করেন তাহলে অনেক সুফল পাবেন। কম্পিটারে সারদিন কাজ করার পর কম্পিউটারের অনেক ফাইল এলোমেলো হয়ে যায় সেগুলো সুন্দর করে সাজিয়ে নেয় ডিক্সডিগফাগমেন্ট এর ফলে।

৫। র‌্যাম ক্লিনার সফটওয়্যার একটি ভালো কার‌্যকরি ভূমিকা রাখে। এই সফটওয়্যারটি যদি আপন ইনষ্টল করে প্রতিদিন ক্লিন করে তাহলে দেখবেন আপনার কম্পিউটার গুলির মত চলছে।

৬। পিসি ক্লিন সফটওয়্যার ব্যবহার করেও ভালো ফলাফল পাওয়া সম্ভব। এই সফটওয়্যারটি মূলত কম্পিউটারের সফল মৃতফাইল ডিলেট করে দেয়। এই সফটওয়্যারটি অনেক সময় ভাইরাসও ধ্বংশ করে। অবশ্য ভারি মানের ভাইরাস ধ্বংশ করতে পারেনা। প্রতিদিন নিয়োম করে পিসি ক্লিন করুন আসাকরা যায় ভালো ফলাফল পাবেন।

৭। কম্পিউটারকে মাঝে মধ্যে পরিষ্কার করুন। কম্পিউটরের ক্যাচিং এর সাথে যে ফ্যান থাকে সেটা দিয়ে অনেক ধুলোবালি ঘুকতে পারে। তাই সপ্তাহে একবার করে হলেও কম্পিউটারের ভিতরের অংশগুলো পরিষ্কার করে রাখুন। তবে সাবধান! কোন পার্সের যেন ক্ষতি না হয় এই দিকে খেয়াল রাখাবেন।

৮। কম্পিউটারে কোন ট্রায়ল ভার্ষণের সফটওয়্যার ব্যবহার করবেন না। ট্রায়াল ভার্ষণ সফটওয়্যারগুলো কম্পিউটারকে ব্যাপক ভাবে স্লো করে দেয়। ট্রায়ল ভার্ষণ সফটওয়্যার যখন ইনষ্টল করবেন তখন প্রথমেই ভালো রেজাল্ট পাবেন কিন্তু যখন তার মেয়াদ শেষ হয়ে যায় তখন থেকেই শুরু হয় কম্পিউটারের স্লো করার সুত্র। তাই চেষ্টা করুন ট্রায়াল সফটওয়্যার থেকে বিরুতি থাকতে।

৯। লো ভোল্টেজে কম্পিউটার চালাবেন না। লো-ভোল্টেজের কারণে কম্পিউটরের পাওয়ার সাপ্লাই সহ মাদার বোর্ড নষ্ট হয়ে যেতে পারে। তাই এই কাজ থেকে বিরোত থাকুন।

১০। কম্পিউটার একনাগারে অনেকদিন ফেলে রাখবেন না। প্রতিদিন কিছু সময় হলেও ব্যবহার করুন। যাতে করে কম্পিউটার সচল থাকে।

প্রিয় ব্লগ একাত্তর এর বন্ধুগণ আমার দেয়া কম্পিউটার টিপস আপনাদের কেমন লাগল। যদি এই টিপসটি আপনাদের সবার ভালো লেগে থাকে তাহলে প্রতিদিন নিয়োম করে আামার ব্লগ একাত্তর সাইটটি ভিজিট করুন। নিজে শিখুন অন্যকেও শিখতে সাহয্য করুন। আপনি চাইলে আপনার ভিতরে লুকিয়ে থাকা প্রতিভা সবার সাথে শেয়ার করতে পারেন ব্লগ একাত্তর সাইটের মাধ্যমে। আপনি একটি আইডি খুলে আপনার নলেজ শেয়ার করুন।

সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে আমি আামার পোষ্টটি শেষ করছি। ভূলত্রুতি হলে ক্ষমা করবেন। সবাই ভালো থাকুন সুস্থ্য থাকুন।

http://20minuteschool.blogspot.com/

Advertisements
mm

Rony

যা জানি তা জানাতে চাই ☺

Add comment

Your Header Sidebar area is currently empty. Hurry up and add some widgets.