ভোর ৪টার পর পুলিশের সাথে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নয়ন বন্ড নিহত হওয়ার পর তার লাশ ময়নাতদন্তের জন্য বরগুনা সদর হাসপাতালে আনা হয়। সেখানে লাশটি দেখার জন্য কয়েকশ মানুষ জড়ো হন। এসময় তাদেরকে উল্লাস করতে দেখা যায়। অনেকে মিষ্টি বিতরণও করেছেন এই অপরাধীর মৃত্যু হওয়ায়। পুলিশ জনতাকে লাইন ধরে লাশ দেখার সুযোগ দেয়।

এদিকে ময়মনসিংহের ফুলবাড়ীয়া উপজেলায় মিষ্টি বিতরণ করেছেন স্বামীর হাতে খুন হওয়া নাজমার অসহায় পিতা আ. আজিজ। মঙ্গলবার সকালে উপজেলার কেশরগঞ্জ বাজারে তার ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠানে তিনি মিষ্টি বিতরণ করে স্বস্তি প্রকাশসহ তার মেয়ে হত্যার বিচার চেয়েছেন।

গত ১১ জুন সাভারে স্বামীর কুড়ালের কোপে খুন হয় আ. আজিজের মেয়ে নাজমা। পুলিশ ঘাতক স্বামী সূর্য জামান বকুলকে আটক করেছে।

আ. আজিজ জানান, তার মেয়ে নাজমাকে তার স্বামী বকুল কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করেছে। মেয়ে হত্যায় পিতা হিসাবে আমি যে কষ্ট পেয়েছি তত টুকু কষ্ট তারাও পেয়েছেন। নয়ন বন্ড আমার মত কোন পিতার সন্তানকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা করেছে। পুলিশের হাতে এ হত্যাকারী নিহত হওয়ায় আমি খুব খুশি হয়েছি। তিনি আরও বলেন, আমার মেয়ে হত্যাসহ সকল হত্যাকাণ্ডের বিচার চাই।

সূত্র: যমুনা টিভি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here